জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় বিস্তারিত জানতে পড়ুন

প্রিয় বন্ধুরা আপনারা হয়ত জিংক বি ট্যাবলেট সম্পর্কে ভালো করে জানেন না তাই অনেকের মনে নানা রকম প্রশ্ন জাগে। যেমন জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় ? আবার কখন কখন জিংক ট্যাবলেট খেতে হয় ? এই রকম নানা প্রশ্ন আমাদের মাথায় গুরপাক খায়। তাই আজকের পোস্টে আমরা জানবো জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় সে সম্পর্কে।
আপনি যদি জিংক ট্যাবলেট খেতে চান এবং মোটা হতে চান তাহলে আজকের পোস্টটি আপনার জন্য তাই জিংক ট্যাবলেটের ব্যবহার, উপকার, অপকার, খাওয়ার নিয়ম এবং খাওয়ার সঠিক সময় সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো। আজকের পোস্টের মূল আলোচনার বিষয় হল জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় কি না সে সম্পর্কে।

ভূমিকা

দৈনন্দিন জীবনে অসুখ বিসুখ ও নানারকম সমস্যার জন্য আমরা ওষুধ খেয়ে থাকি। তার মধ্যে জিংক বি একটি। আমরা ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া অনেক ওষুধ সেবন করে থাকি কিন্তু সেটা ঠিক না। কেননা কোন ওষুধের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কেমন সেটা আমরা জানিনা। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া সেবন করার মত একটি ওষুধ হচ্ছে জিংক বি। আমরা অনেকেই জিংক বি সেবন করে থাকি কিন্তু কয়জনই বা এই ওষুধ সম্পর্কে জানি। অনেকে মনে করে জিংক বি সেবন করলে মোটা হওয়া যায়।

এই সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানতে আপনাকে আমাদের আজকের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়তে হবে। কেননা আজকের আর্টিকেলে আমরা জিংক ট্যাবলেট খেলে মোটা হওয়া যাই কিনা, জিংকের উপকারিতা এবং অপকারিতা ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে জানবো।

জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় ?

অনেকের মনে একটি প্রশ্ন বার বার জাগে যে, জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় ? উত্তরে আমি আপনাকে বলবো যে, না ভিটামিন জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কোন ওজন বৃদ্ধি কিংবা মোটা হওয়া যায়না। শরীরের ওজন বাড়ানোর জন্য বাজারে নানা রকম ট্যাবলেট পাওয়া যায় আপনি চাইলে সেগুলো খেতে পারেন। তবে আমার ব্যাক্তিগত পরামর্শ থাকবে যে মোটা হওয়ার জন্য আলাদা কোন ওষুধ না খাওয়াই উচিত কারণ বাজারের ঐ রকম ওষুধের নানা রকম পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া থাকে যা ভবিষ্যতে আপনার শরীরের ক্ষতি সাধন করতে পারে।

আর যে বিষয় নিয়ে আলোচনা করছিলাম জিংক বি। এই ট্যাবলেটটি খেলে আপনি মোটা হবেন না তবে জিংক বি অনেক ভালো একটি ভিটামিন। এটি আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। জিংক বি ট্যাবলেট খেলে আপনার শরীরের ভিটামিন বি ও জিংকের ঘাটতি পূরণ করে। তবে অনেকে বলে যে ভিটামিন জিংক বি ট্যাবলেট খেলে ওজন বৃদ্ধি পায় তবে কেূ এটার সত্যতা প্রমান করে দিতে পারেনি। তবে হ্যা, জিংক বি ট্যাবলেট খেলে খাবারের রুচি অনেক বেশি হয়ে যায়।

আর আপনি যদি প্রচুর খেতে পারেন তাহলে আপনার শরীর এমনি অনেক মোটা হয়ে যাবে। তাই হয়ত অনেকে বলে যে জিংক বি ট্যাবলেট খেলে মোটা হওয়া যায়। তাহলে আশা করছি আপনারা এতক্ষণে জেনে গেছেন যে জিংক বি ট্যাবলেট খেলে মোটা হওয়া যায়না এমনি খাবারের রুচি অনেক বেশি হয়ে যায়। তাই আমাদের ভুল ধারণাকে বদলাতে হবে। আজকে আমরা জানলাম জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় সে সম্পর্কে।

জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারিতা

প্রিয় পাঠক এতক্ষণ আমরা জানলাম যে, জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় সে বিষয় সম্পর্কে। এখন আমরা জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে। আমরা অনেকেই হয়ত জিংক বি ট্যাবলেট খেয়ে থাকি কিন্তু এটার উপকারিতা সম্পর্কে আমাদের সঠিক কোন ধারণা নেই। তাহলে চলুন আমরা জিংক বি ট্যাবলেট খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিই।

  • প্রথমত জিংক বি ভিটামিন বি ও জিংকের অভাব পূরণ করে।
  • শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। শরীরের ইমিউনিটি ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
  • বমি বমি ভাব এবং ডাইরিয়া হলে জিংক বি ট্যাবলেট খেলে ভালো হয়ে যায়।
  • মানসিক দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি দেয় জিংক বি ট্যাবলেট।
  • পড়াশুনার প্রতি মনোযোগ বাড়াতে সাহায্য করে জিংক বি ট্যাবলেট।
  • শরীরের দুর্বলতা কাটাতে সাহায্য করে।
  • চুল পড়া বন্ধে জিংক বি ট্যাবলেট কাজ করে।
  • পুষ্টির ঘাটতি কমাতে সাহায্য করে বিশেষ করে ভিটামিন বি কমপ্লেক্সের।
  • দেহের খত বা ঘা থাকলে তাড়াতাড়ি সারাতে সাহায্য করে।
  • যাদের একজিমা আছে তাদের জন্য জিংক বি ট্যাবলেট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
  • কাজের প্রতি অমনোযোগিতা কমাতে সাহায্য করে।
  • শরীরকে কাজের প্রতি আকৃষ্ট করে এবং সতেজ রাখতে সাহায্য করে।
  • পুরুষের যৌন সমস্যা সমাধানে জিংক বি ট্যাবলেট সহায়ক ভূমিকা রাখে।
  • ছেলেমেয়েরা ব্রণ দূর করতে জিংক বি ট্যাবলেট কাজ করে।
  • জিংক বি ট্যাবলেট ক্ষুধা জনিত সমস্যা দূর করতে এবং খাবারের প্রতি রুচি বাড়াতে সাহায্য করে।
  • ঠাণ্ডা লেগে কাশি হলে জিংক বি ট্যাবলেট সারাতে সাহায্য করে।
  • খাবারের প্রতি আকৃষ্ট করে।
  • সর্বোপরি শরীর রোগমুক্ত স্বাস্থ্যবান করতে সাহায্য করে জিংক বি ট্যাবলেট।
এতক্ষণ আমরা জিংক বি ট্যাবলেটের উপকারিতা সম্পর্কে জানলাম। আজকের পোস্টের আলোচনার বিষয় হচ্ছে, জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় সে বিষয়ে।

জিংক খেলে কি খুদা কমে ?

জিংক আমাদের শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। জিংক আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। আমাদের দেহের সাধারণ বৃদ্ধি ও প্রোটিন উৎপাদনে সাহায্য করে। শরীরে জিংকের অভাব হলে নানারকম সমস্যা দেখা দেয় যেমন শরীর দুর্বল, মানসিক অশান্তি, খুদা হ্রাস, ওজন হ্রাস, ঘন ঘন ডাইরিয়া, চুল পড়া ইত্যাদি । জিংক খেলে খুদা বেশি হয়। তাই কেও যদি প্রাকিতিক ভাবে মোটা হতে চাই তাকে জিংক বি ট্যাবলেট খেতে হবে তাহলে খুদা বেশি হবে এবং মোটা হয়ে যাবে।

একজন মহিলার প্রতিদিন কতটুকু জিংক খাওয়া প্রয়োজন ?

অনেক মহিলা জানেনা প্রতিদিন তাদের কি পরিমাণ জিংক খাওয়া প্রয়োজন। কম বা বেশি হলে শরীরে খারাপ প্রতিক্রিয়া ফেলতে পারে তাই আমাদের জেনে নিতে হবে যে একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মেয়ে এবং ছেলের কতটুকু জিংক খাওয়া উচিত। জিংক আমাদের শরীরের ইমিউন সিস্টেম এবং পরিপাকের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মহিলার প্রতিদিন ৭ মিলিগ্রাম এবং একজন প্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষের জন্য ৯.৫ মিলিগ্রাম জিংক খাওয়া প্রয়োজন। আজকে আমরা জানলাম যে, জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় সে সম্পর্কে।

সর্দি হলে কতটুকু জিংক খাওয়া উচিত ?

জিংক যেহেতু সর্দির জন্যই ব্যবহৃত হয় সুতরাং আমরা সর্দির জন্য জিংক খেতে পারি। সর্দির জন্য ১০ দিনে ২৩.৯ মিলিগ্রাম জিংক খাওয়া যেতে পারে। আজকের পোস্টে আমরা জিংক বি ট্যাবলেট খেলে মোটা হওয়া যায় কি , জিংক বি ট্যাবলেটের উপকারিতা ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে জেনেছি।

জিংক বেশি খেলে কি হয় ?

প্রতিটি জিনিসের ভালো দিকের পাশাপাশি কিছু খারাপ দিকও থাকে ঠিক তেমনি জিংকের ও কিছু খারাপ দিক বা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া আছে। যেমনঃ

  • অধিক জিংক বি ট্যাবলেট সেবন করলে পেটের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে।
  • বমি বমি ভাব কিংবা বমিও হতে পারে অতিরিক্ত জিংক সেবন করলে।
  • সঠিক নিয়মে জিংক না গ্রহণ করলে ডাইরিয়া দেখা দিতে পারে।
  • মাথা ঘোরা এবং মাথা ব্যথা করতে পারে।
  • পাকস্থলির হজমের সমস্যা দেখা দিতে পারে।
সবমিলিয়ে বলা যায় কোন কিছুই অতিরিক্ত আর পরামর্শ ছাড়া সেবন করা উচিত না। জিংক সেবনে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

জিংক ট্যাবলেটের দাম কত ?

ওপরে আমরা জিংকের উপকারিতা, অপকারিতা, খাওয়া ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে জানলাম। এখন আমরা জিংক ট্যাবলেটের দাম সম্পর্কে জানবো। স্কয়ার কোম্পানির জিংক ২০ মিলিগ্রাম ট্যাবলেটের দাম ৩.৫ টাকা । অন্যান্য কোম্পানির দাম একটু কম বেশি হতে পারে।

কোন কোন খাবারে জিংক পাওয়া যায়

এখন প্রশ্ন হল ট্যাবলেট ছাড়া আর কোন কোন খাবার খেলে জিংকের অভাব পূরণ হবে ? এখন আমরা এইরকম কিছু খাবারের নাম জানবো।

  • শাকসবজি
  • দুদ্ধ জাতীয় খাবার
  • বাদাম
  • কাজু বাদাম
  • মাশরুম
  • মুরগির মাংস
  • চকলেট
  • মাংস
  • ডিম
  • কুমড়ার বিচি
উপরিক্ত খাবারগুলোতে প্রচুর পরিমাণে জিংক পাওয়া যায়। ট্যাবলেট নে খেয়ে উক্ত খাবার খেলে আপনার শরীরের জিংকের অভাব পূরণ হবে। আজ আমরা জানলাম যে , জিংক বি ট্যাবলেট খেলে কি মোটা হওয়া যায় ।

লেখকের মন্তব্য

আমরা আজ জিংক বি ট্যাবলেটের সম্পর্কে অনেক তথ্য জেনেছি। আপনি চাইলে জিংক ট্যাবলেট খাওয়ার পাশাপাশি প্রাকৃতিক উপায়ে জিংক পেতে পারেন এই জন্য আপনাকে উপরিক্ত খাবারগুলো খেতে হবে।

সর্বোপরি পোস্টটি ভালো লাগলে লাইক এবং ফলো দিয়ে পাশেই থাকবেন। পরিচিতদের কাছে পোস্টটি শেয়ার করে তাদের জিংক বি ট্যাবলেট সম্পর্কে জানার সুযোগ করে দিন। এইধরণের পোস্ট পড়তে নিয়মিত আমাদের পেজটি ভিজিট করতে পারেন, ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url